আগ্রহ বাড়বে ওটিটিতে

SIMANTO SIMANTO

BANGLA

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৮, ২০২১

সীমান্তবাংলাঃ স্মার্টফোনের কল্যাণে ওয়েব দুনিয়া এখন মানুষের পকেটে। যেকোনো জায়গা থেকেই বিনোদনের কনটেন্ট দেখার সুযোগ বাড়ছে প্রতিদিনই। কয়েক বছর আগেও বাংলাদেশে ওটিটি প্ল্যাটফর্মের জন্য ওয়েব ফিল্ম, ওয়েব সিরিজ তৈরির আলোচনা ছিল না। সে চিত্র পাল্টে যাচ্ছে ক্রমেই। গত বছর ‘মানিহানি’, ‘আগস্ট ১৪’, ‘কুহক’, ‘শিকল’, ‘তাকদীর’সহ বেশ কিছু ওয়েব সিরিজ আলোচনা তৈরি করেছে। ক্রমেই নির্মাতা ও দর্শক, দুই ক্ষেত্রেই ওটিটি (ওভার দ্য টপ) প্ল্যাটফর্মের দিকে আগ্রহ বাড়ছে। এরই মধ্যে নতুন বছরের জন্য ওয়েব ফিল্ম ও ওয়েব সিরিজের ঘোষণা দিয়েছে বাংলা ভাষার বেশ কিছু ওটিটি প্ল্যাটফর্ম। ‘জানোয়ার’, ‘ইউটিউমার’, ‘ট্রল’, ‘ছক’, ‘ডার্ক নাইট’, ‘জিরো টলারেন্স’, ‘অমানুষ’, ‘মানি মেশিন’ নামে ওয়েব ফিল্মের কথা শোনা যাচ্ছে। ওয়েব সিরিজ আসছে ‘মরীচিকা’, ‘বিলাপ’, ‘মাফিয়া গ্যাং’, ‘জাল’, ‘পাফ ড্যাডি’, ‘স্পেশাল সেভেন’ ইত্যাদি।

 

পাফ ড্যাডি’র শুটিংয়ে পরীমনি ও সজল। ছবি: ফেসবুক‘

তারকাবহুল হওয়ায় শুটিংয়ের সময়ই আলোচনা তৈরি হয়েছে ওয়েব সিরিজ ‘মরীচিকা’ নিয়ে। সিরিজটি প্রচারের মধ্য দিয়ে যাত্রা শুরু হচ্ছে নতুন ওটিটি প্ল্যাটফর্ম চরকির।

চরকির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রেদওয়ান রনি বলেন, ‘তারকাবহুল ওয়েব সিরিজ “মরীচিকা” দিয়েই চরকি প্ল্যাটফর্মটির যাত্রা শুরু করছি আমরা। সিরিজটির বাজেট অনেক বেশি। আমার বিশ্বাস, ছোট ও বড় পর্দার প্রায় সব জনপ্রিয় তারকা নিয়ে সিরিজটি বছরের প্রথম আলোচিত কনটেন্ট হবে।’ তিনি জানান, চরকি থেকে এ বছর ১২ মাসে ১২টি বড় বাজেটের তারকাসমৃদ্ধ ওয়েব ফিল্ম প্রকাশিত হবে।

রেদওয়ান রনি। 

দেশজুড়ে ইন্টারনেট যত প্রসারিত হবে, ওয়েব কনটেন্ট ব্যবসার দিগন্তও উন্মোচিত হওয়ার সম্ভাবনা তত বেশি বলে মনে করেন সিনেম্যাটিকের পরিচালক তামজিদ-উল আলম। তিনি বলেন, ‘ইন্টারনেট প্রসারের কারণে মানুষের বিনোদন কনটেন্ট সম্পর্কে জানার পরিধি বেড়েছে। সামনে কী ধরনের বিনোদন কনটেন্ট আসতে পারে, মানুষ কী ধরনের কনটেন্ট পছন্দ করতে পারে, মানুষ তা আঁচ করতে পারছে। আগামী দিনে ওটিটিতে ওয়েব ফিল্ম ও ওয়েব সিরিজের ভালো ব্যবসা হবে।’

 

গত বছর ‘শিকল’সহ বেশ কিছু ওয়েব সিরিজ আলোচনা তৈরি করেছে

গত বছর ‘শিকল’সহ বেশ কিছু ওয়েব সিরিজ আলোচনা তৈরি করেছে

‘আগস্ট ১৪’ ও ‘কুহক’–এর নির্মাতা শিহাব শাহীন এখন ব্যস্ত তারকাবহুল ওয়েব সিরিজ ‘মরীচিকা’ নিয়ে। তিনি বলেন, ‘আগামী দিনগুলোতে ওয়েব কনটেন্টই ভবিষ্যৎ। সারা দুনিয়া ইন্টারনেটকেন্দ্রিক হয়ে যাচ্ছে। ভবিষ্যতে ওয়েব ফিল্ম, ওয়েব সিরিজের মধ্যেই বিনোদন খুঁজবে মানুষ। আমরা কেন পিছিয়ে থাকব?’ তিনি মনে করেন, মানহীন নাটক বানিয়ে ওয়েব সিরিজ হিসেবে চালিয়ে দেওয়া যাবে না। এদিকটায় খেয়াল রাখতে হবে।

বিঞ্জ নতুন বছরে আনছে বেশ কিছু ওয়েব সিরিজ ও ওয়েব ফিল্ম। বড় ক্যানভাসেও কিছু প্রজেক্ট নিয়ে পরিকল্পনা চলছে। তবে সেসব বিষয়ে এখনই বিস্তারিত জানাতে চাইছে না তারা। বিঞ্জের পরিচালক আহমেদ আরমান সিদ্দিকী বলেন, ‘নতুন বছরে আরও বেশি প্রোডাকশন নিয়ে আসব। শিল্পী ও শিল্পের যেন বিকাশ ঘটে, সে চেষ্টা থাকবে। তবে এ বছর ওটিটি প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে কোলাবোরেট করে কাজ করার পরিকল্পনা আছে। কো–প্রোডাকশনে যেতে চাই। ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ডে কনটেন্ট নির্মাণের ইচ্ছা আছে। নতুন বছর বাংলাদেশি কমিউনিটিতে বিঞ্জ যেন সেরা কনটেন্ট দিতে পারে, সেই চেষ্টা থাকবে।’

পলাশ, আদনান আল রাজীব ও প্রীতম

ওয়েব ফিল্ম ও ওয়েব সিরিজে সিনেমার তারকারাও ঝুঁকছেন। ‘আইসক্রীম’ ও ‘ন ডরাই’ সিনেমাতে অভিনয় করেছেন শরীফুল রাজ। ‘ইনফিনিটি’ নামে একটি ওয়েব সিরিজেও অভিনয় করেছেন। তিনি বলেন, ‘সিনেমায় কাজ করে আবার ওয়েব সিরিজে কাজ করব কি না, এ নিয়ে প্রথম দিকে দ্বিধায় ছিলাম। কিন্তু সিনেমা হল বন্ধ, সিনেমার অবস্থা শোচনীয়। এর মধ্যেই দেখলাম ওয়েব ফিল্ম ও সিরিজ জোরেশোরেই নির্মাণ শুরু হয়েছে। গল্প, নির্মাণ ও বাজেট ভালো। বিষয়গুলো মাথায় নিয়েই ওয়েব সিরিজে কাজ করছি।’

(সীমান্তবাংলা/৮ জানুয়ারি ২০২১ইং)