বুধবার (২২ আগস্ট) ঈদুল আযহা উপলক্ষে শরণার্থী শিবিরের অস্থায়ী মসজিদগুলোতে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। কুতুপালং শরণার্থী শিবিরে নানান আয়োজনের মধ্য দিয়ে আনন্দ উদযাপন করতে দেখা যায় শত শত রোহিঙ্গাদের। এসময় নতুন নতুন জামা পরে নাগর দোলায় চড়ে আনন্দ করতে দেখা যায় রোহিঙ্গা শিশু-কিশোরদের।

রোহিঙ্গা যুবক মোহাম্মদ ইসা আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে বলেন, মিয়ানমারে থাকাকালে আমাদের হাতে টাকা-পয়সা ছিল, কোরবানি দেওয়ার জন্য গবাদিপশু ছিল। তখন ঈদের আনন্দ আরও বেশি ছিল।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, এবারের ঈদের আনন্দকে বাড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে ৩০টি ক্যাম্পের এক লাখ ৯৫ হাজার রোহিঙ্গা পরিবারকে কোরবানির মাংস দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এছাড়াও ত্রাণ হিসেবে রোহিঙ্গা পরিবারদের মাঝে গরু বিতরণ করা হয়। জেলা প্রশাসন ছাড়াও রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কর্মরত বিভিন্ন এনজিও, সংগঠন ও ব্যক্তিগতভাবে কোরবানির পশু দান করেছে।

সুত্র- দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ /  alokitobangladesh.com