শনিবার, ২২ Jun ২০২৪, ০২:৫৯ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ
সেন্টমা‌র্টিন দ্বীপ নি‌য়ে বাকযুদ্ধ – মেজর না‌সিরু‌দ্দিন(অব) পিএইচ‌ডি রা‌সেল ভাইপার সা‌পের কাম‌ড়ে আক্রান্ত কৃষক এখ‌নো সুস্থ  রাসেলস ভাইপার নিয়ে আতঙ্ক না ছড়িয়ে সচেতন হওয়ার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের এক ছাগল কিনেই বেরিয়ে এলো মতিউর-লাকী দম্পতির থলের বেড়াল ভারতকে হারিয়ে সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে মরিয়া টাইগাররা প্রধানমন্ত্রী দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে নয়াদিল্লী পৌঁছেছেন মোটরবাইক ও ইজিবাইকের কার‌ণে সা‌দে‌শে সড়ক দুর্ঘটনা বাড়‌ছে- সেতুমন্ত্রী ওবাইদুল কা‌দের  ওমা‌নে খুল‌ছে বাংলা‌দে‌শের তৃতীয় বৃহত্তম শ্রমবাজার এলাকাজুড়ে আতঙ্ক, মানিকগঞ্জে লোকালয়ে ঢুকেছে রাসেল ভাইপার উত্তর পুর্বাঞ্চলীয় রা‌জ্যের স‌ঙ্গে অন‌্যান‌্য রাজ‌্যগু‌লোকে সংযুক্ত কর‌তে বাংলা‌দে‌শের উপর‌দি‌য়ে বিকল্প রেলপথ তৈ‌রি কর‌তে যা‌চ্ছে ভারত সরকার 
সাড়ে সাত হাজার ইয়াবাসহ চিকিৎসক গ্রেপ্তার

সাড়ে সাত হাজার ইয়াবাসহ চিকিৎসক গ্রেপ্তার

সীমান্তবাংলা ডেক্স : নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে আরিফ মঈনউদ্দিন নামে একজন চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এ সময় জুলি আক্তার ওরফে রূপা নামে তার এক নারী সহযোগীকেও গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের নিকট ৭ হাজার ৮৫০টি ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এ তথ্য জানান র‌্যাব-১১ এর কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জসিম উদ্দীন।তিনি জানান, ভোরে গোপন তথ্যেরভিত্তিতে নারায়ণগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানার চিটাগাং রোড এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী একটি প্রাইভেটকারে তল্লাশি চালায় র‌্যাব। এসময় ৭ হাজার ৮৫০টি ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। ইয়াবা পাচারের দায়ে আরিফ মঈনউদ্দিন ও জুলি আক্তার ওরফে রূপা নামে দুই মাদক কারবারিকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব সদস্যরা।

র‌্যাব আরও জানায়, গ্রেপ্তার আসামি আরিফ মঈনউদ্দিন পেশায় একজন এমবিবিএস ডাক্তার। তিনি চট্টগ্রামের স্বনামধন্য বেসরকারি মেডিকেল কলেজ ইউএসটিসি হতে ২২তম ব্যাচে এমবিবিএস পাস করেন। বর্তমানে চট্টগ্রামের বেসরকারি রয়েল হাসপাতালে কর্মরত। ডাক্তারি পেশার পাশাপাশি নিয়মিত ইয়াবা সেবন করতেন এবং এক পর্যায়ে নিজেই ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িয়ে পড়েন। প্রথম দিকে তিনি চট্টগ্রামের খুচরা মাদক ব্যবসায়ীদের ইয়াবা সরাবরাহ করেন এবং পরবর্তীতে প্রতি মাসে পাঁচ থেকে ছয়বার চট্টগ্রাম থেকে ইয়াবা নিয়ে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও এর আশপাশের এলাকার মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে সরবরাহ ও বিক্রয় করতে শুরু করেন। মহান চিকিৎসা পেশার আড়ালে আর্থিকভাবে দ্রুত লাভবান হওয়ার জন্য কৌশলে মাদক ব্যবসার সিন্ডিকেট গড়ে তোলেন তিনি। তার এই অবৈধ মাদক ব্যবসার সিন্ডিকেটের সাথে একাধিক নারী ও পুরুষ সহযোগী হিসেবে জড়িত।

ঢাকাটাইমস/১৫অক্টোবর/এডমিন/ইবনে

সংবাদটি শেয়ার করুন

পোষ্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© কপিরাইট ২০১০ - ২০২৪ সীমান্ত বাংলা >> এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ

Design & Developed by Ecare Solutions