সড়কে এক দিনে ১০ প্রাণহানি

SIMANTO SIMANTO

BANGLA

প্রকাশিত: নভেম্বর ৯, ২০২২

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় এক দিনে ১০ জনের প্রাণহানি হয়েছে। এর মধ্যে ফেনীতে যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়েছেন। এছাড়া ঝিনাইদহের শৈলকুপায় দুজন, নারায়ণগঞ্জে দুজন এবং ঢাকায় ও পাবনায় একজন করে নিহত হয়েছেন

ফেনী: বেলা ১১টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মোহাম্মদ আলী দুলামিয়া এলাকায় বুধবার বেলা ১১টার দিকে যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘষে চারজন নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়েছেন আরও কয়েকজন।

নিহতরা হলেন- কাভার্ডভ্যান চালক কুমিল্লা সদর থানার দুর্গাপুর এলাকার নাজমুল (৩৫), ফিরোজপুর জেলার নেছারাবাদ থানার ফোরকান (৫০), লক্ষ্মীপুর জেলার রিয়াজ উদ্দিন। অপর একজনের পরিচয় জানা যায়নি।

ফেনী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের উপ-পরিচালক পূর্ণচন্দ্র মৃৎসুদ্দি জানান, ইউনিক সার্ভিসের যাত্রীবাহী বাস চট্টগ্রাম থেকে ঢাকার দিকে যাচ্ছিলো। কাভার্ডভ্যান মহাসড়কে উল্টো পথে চট্টগ্রাম যাওয়ার পথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে বাসটি দুমড়েমুচড়ে ঘটনাস্থলে তিনজন নিহত হন।

ফেনী জেনারেল হাসপাতাল পুলিশের ইনচার্জ নায়েক জসিম উদ্দিন জানান, ঘটনাস্থলে তিনজন মারা গেছেন। হাসপাতালে আনার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় লক্ষ্মীপুর জেলার রিয়াজ উদ্দিন নামে আরও একজন মারা যান। লাশ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। গুরুতর আহত চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় চিকিৎসক চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছেন।

ফেনীর মহিপাল হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তফা কামাল বলেন, চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ইউনিক পরিবহনের একটি বাস ঢাকার দিকে যাচ্ছিল। এ সময় উল্টো পথে আসা কাভার্ডভ্যানের সঙ্গে বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। তাৎক্ষণিক পুলিশ হতাহতদের উদ্ধার করে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। দুর্ঘটনা কবলিত বাস-কাভার্ডভ্যান উদ্ধার করে থানায় রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনা দুটির ব্যাপারে জেনেছি। তবে এখনো কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে লেগুনা ও কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় দুই গাড়ির চালক নিহত হয়েছেন। বুধবার দুপুরে উপজেলার আড়াইহাজার-মদনপুর সড়কের লেঙ্গুরদী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন: উপজেলার সদর পৌরসভার কৃষ্ণপুরা গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের ছেলে রতন (৪২) ও ব্রাহ্মন্দী ইউনিয়নের লস্করদী গ্রামের বিল্লালের ছেলে দীন ইসলাম (৪৫)। তাদের মধ্যে একজন ঘটনাস্থলে ও অপরজন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর মারা যান।

প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুল হক হাওলাদার জানান, একটি লেগুনা প্রভাকরদী থেকে যাত্রী নামিয়ে আড়াইহাজার সদরের দিকে যাচ্ছিল। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা দ্রুতগতির একটি কাভার্ডভ্যান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে লেগুনার সামনে এসে পড়ে। একই সময় একটি অটোরিকশা, লেগুনা ও কাভার্ডভ্যানের সঙ্গে ধাক্কা লেগে ত্রিমুখী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় লেগুনাচালক ভেতরে আটকা পড়েন। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে তার মরদেহ উদ্ধার করেন।

ওসি আরও জানান, এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন। স্বজনদের অনুরোধে ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহদুটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ঢাকা: রাজধানীর বনানীতে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আনোয়ার হোসেন নামে এক পাঠাও চালকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার ভোররাতে টিঅ্যান্ডটি এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতের বাড়ি শেরপুর সদর উপজেলার হাজিপুর গ্রামে।

বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আজম মিয়া ঢাকা টাইমসকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ওসি নুরে আজম মিয়া বলেন, নিহত একজন পাঠাও চালক ছিলেন। তার মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়ক বিভাজনের সঙ্গে ধাক্কা লেগে মারাত্মকভাবে আহত হন। পরে মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে সকালে তার মৃত্যু হয়। ঘটনার সময় মোটরসাইকেলে তিনি একাই ছিলেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া বলেন, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

পাবনা: পাবনার ঈশ্বরদীতে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে নান্টু বিশ্বাস (৪২) নামে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। বুধবার সকাল ৭টায় দাশুডিয়া-লালন শাহ সেতুর দিয়াড় বাঘইল মজিবার সরদারের রাইচ মিলের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নান্টু বিশ্বাস রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের রোসেম কোম্পানির একজন শ্রমিক এবং উপজেলার সলিমপুর ইউনিয়নের মানিকনগর বিশ্বাসপাড়ার মজিদ বিশ্বাসের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী হাবিবুর রহমান বাবু জানান, নান্টু বিশ্বাস মোটরসাইকেল নিয়ে বাড়ি থেকে কর্মস্থল রূপপুর প্রকল্পে যাচ্ছিলেন। পথে রূপপুর মোড় থেকে আসা একটি ট্রাক তাকে চাপা দিলে

পাকশী হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ আশিষ স্যানাল জানান, ঘাতক ট্রাকটি এখনো শনাক্ত করা যায়নি। লাশ তার পরিবার নিয়ে গেছে। ট্রাক এবং চালককে আটকের চেষ্টা করা হচ্ছে।