রো‌হিঙ্গা ক্যাম্পে ‘আগু‌নের ঘটনার বিষ‌য়ে কা‌রো অব‌হেলা বা ষড়যন্ত্র থাক‌লে ,কঠোর ব্যবস্হা নেয়া হবে-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

SIMANTO SIMANTO

BANGLA

প্রকাশিত: মার্চ ২৪, ২০২১

সীমান্তবাংলা নিউজ ডেস্কঃ

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কারো ষড়যন্ত্র, দুরভিসন্ধি বা অবহেলা কিংবা দোষ থাকলে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে। ইতিমধ্যে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা নিয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা তদন্ত করে সরকারের কাছে রিপোর্ট জমা দেবে। রিপোর্টে কারো দুরভিসন্ধি বা অবহেলা পাওয়া গেলে তা অবশ্যই খতিয়ে দেখবে সরকার।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, আজ বুধবার দুপুরে উখিয়ায় ক্ষতিগ্রস্থ রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের সংক্ষিপ্ত ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন এবং র‍্যাব আয়োজিত ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গাদের মধ্যে বস্ত্র বিতরণ কার্যক্রমে অংশ নেন।

দুপুর ২টায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হেলিকপ্টারে করে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আসেন। পরে বালুখালী ক্যাম্পে ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় মন্ত্রী অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেন এবং ক্ষতিগ্রস্ত সবাইকে সহায়তার আশ্বাস দেন।

আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সাংবাদিকদের জানান, ভাসানচর এখন অনেক উন্নত জায়গা। অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ও নিঃস্ব হয়ে যাওয়া রোহিঙ্গারা যদি সেখানে যেতে চায় তাহলে অবশ্যই সরকার তাদের সেখানে নিয়ে যাবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উল্লেখ করেন, সরকারের প্রথম অগ্রাধিকার হচ্ছে রোহিঙ্গাদের তাদের দেশ মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো। রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠাতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের কাছে আমরা সব সময় বলে আসছি। বিশ্ব সম্প্রদায় রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফেরত পাঠাতে ভূমিকা রাখুক, এই প্রত্যাশা বাংলাদেশ করে।

গত ২২ মার্চ উখিয়ার বালুখালীর পাঁচটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে সরকারি হিসাবে ১১ জনের মৃত্যু হয়। প্রায় ১০ হাজার বসতঘর পুড়ে যায়, তারমধ্যে প্রায় ১৫০টি স্থানীয় কমিউনিটির এবং ৪৫ হাজার রোহিঙ্গা ও প্রায় একহাজার স্থানীয় বাস্তুচ্যুত হয়।

সীমান্তবাংলা/ শা,ম/ ২৪ মার্চ ২০২১