শুক্র. নভে. ১৫, ২০১৯

মিয়ানমারের রোহিঙ্গা ফিরিয়ে নেওয়ার তথ্য যাচাই করবে বাংলাদেশ

সীমান্ত বাংলা প্রতিবেদক > এখন পর্যন্ত ৩৫১ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেওয়ার ঘটনায় দেশটির ঢাকাস্থ দূতাবাসের দেওয়া তথ্যের যাচাই-বাচাই করা হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নিজ কক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ এ সম্পর্কে কিছুই জানে না। আমরা যাচাই-বাচাই করে পরে এ বিষয়ে বিবৃতি দিয়ে জানাবো।’গত ২২ অক্টোবর মিয়ানমারের দূতাবাস ফেসবুক পেজে ছবি দিয়ে ২৯ রোহিঙ্গা শরণার্থীর দেশে ফেরার তথ্য দেওয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, দেশটির তাং পিয়ানো লেটো রিসেপশন সেন্টারের মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে তারা মিয়ানমারে ফিরেছেন। প্রত্যাবাসনকালে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, সমাজকল্যাণ, ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা ফিরে যাওয়া রোহিঙ্গাদের অভিবাদন জানান।

মিয়ানমারের দাবি, এখন পর্যন্ত ৩৫১ রোহিঙ্গা শরণার্থী তাদের নিজ ভূমে ফিরে গেছেন। তাদের থাকা-খাওয়াসহ সবধরনের সুবিধা দিচ্ছে দেশটি।দূতাবাস পেজে আরও জানানো হয়, মিয়ানমার সরকার শরণার্থীদের নিরাপদ, স্থায়ী ও মসৃণ প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ সরকার ও জাতিসংঘকে পূর্ণ সহযোগিতা দিয়ে যাবে।এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারকে চাপে রাখতে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (ইইউ) প্রতি দেশটির জিএসপি (শুল্কমুক্ত বাজার সুবিধা) বাতিলের সুপারিশ করেছেন বলেও জানান।

মন্ত্রী বলেন, ‘ইউরোপ সফরকালে বিভিন্ন দেশের নেতাদের সঙ্গে রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আলোচনা করেছি। তাদের বলেছি, এ সংকট সমাধানে মিয়ানমারকে চাপে রাখতে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রতি দেশটির জিএসপি সুবিধা বাতিলের সুপারিশ করেছি।’কূটনৈতিক অর্থনীতির সম্পর্ক বৃদ্ধিতে সম্প্রতি জার্মানি, ফ্রান্স, ইতালি, গ্রিস ও আজারবাইজান সফর শেষে দেশে ফিরেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

-ঢাকাটাইমস/৩১অক্টোবর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সর্বশেষ খবর