শুক্র. আগস্ট ২৩, ২০১৯

ভারতে পাচার হওয়া ৭ যুবতীকে বেনাপোলে হস্তান্তর

সীমান্ত বাংলা> ভাল কাজের প্রলোভনে বিভিন্ন সময় ভারতে পাচার হওয়া সাত বাংলাদেশি যুবতীকে ফেরত পাঠিয়েছেন ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ।

বুধবার বিকালে কাগজ পত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ ও বিএসএফ সদস্যরা তাদেরকে যৌথভাবে বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশ ও বিজিবি সদস্যদের হাতে তুলে দেয়।
রাইটস যশোর নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদেরকে পরিবারের কাছে পৌঁছে দিতে নিজেদের জিম্মায় নিয়েছেন।

ফেরত আসারা হলেন- খুলনার রোজা খাতুন (২১), মনা খাতুন (১৯), পিরোজপুরের মরিয়ম (১৮), শান্তি খাতুন (১৬), রিনা মুন্নি (১৯ ), ঝিনাইদহের বিলকিস (২২) ও শিমা(২১)।

পাচারের শিকার ময়না খাতুন জানান, ভালো কাজের সন্ধানে অবৈধ পথে সীমান্ত পথে সে ভারতে পাড়ি জমায়। পরে দালালরা তাকে সেখানে ফেলে পালিয়ে আসে। ভারতীয় পুলিশ তাকে আটক করে জেলে পাঠায়। সেখান থেকে ভারতীয় একটি এনজিও সংস্থা তাকে ছাড়িয়ে নিজেদের আশ্রয়ে রাখে। ৩ বছর পর তিনি বাড়ি ফিরছেন।

এনজিও সংস্থা রাইটস যশোরের প্রতিনিধি জানান, দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যোগাযোগের মাধ্যমে তাদেরকে স্বদেশ প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় তাদের ফেরত আনা হয়েছে। এরা যদি পাচারকারীদের শনাক্ত করে মামলা করতে আইনি সহায়তা করা হবে।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মাসুম বিল্লাহ জানান, কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাদেরকে পোর্টথানা পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সর্বশেষ খবর