রবিবার, ১৪ Jul ২০২৪, ০১:২৯ পূর্বাহ্ন

বরগুনায় প্রেমিক যুগলের একসঙ্গে বিষপান

বরগুনায় প্রেমিক যুগলের একসঙ্গে বিষপান

বরগুনা তালতলীতে দুই পরিবার বিয়ে দিতে রাজি না হওয়ায় প্রেমিক যুগল একই সঙ্গে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে।

শুক্রবার গভীর রাতে উপজেলার সোনাকাটা ইউনিয়নের লালুপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার সোনাকাটা ইউনিয়নের নিদ্রা এলাকার জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে একাদশ শ্রেণির ছাত্র আবুল কাশেমের (১৫) সঙ্গে লালুপাড়া গ্রামের নান্না মিয়ার মেয়ে নবম শ্রোণীর ছাত্রী নাদিরার (১৪) দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল।

এই সম্পর্কের বিষয়টি দুই পরিবারের মধ্যে জানাজানি হয়। কিন্তু কোনো পরিবারই তাদের বিয়ে দিতে রাজি হয়নি। শুক্রবার রাতে কাশেম প্রেমিকা নাদিরার বাড়িতে বিষের বোতল নিয়ে হাজির হয়। এরপর নাদিরাকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়।

এতে নাদিরার পরিবার রাজি না হওয়ায় সেখানেই কাশেম ও নাদিরা একই সঙ্গে বিষ পান করে। পরে তাদের দুইজনকে স্বজনরা উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। কাশেমের অবস্থা সংকটাপন্ন হলে তাকে পটুয়াখালী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নাদিরা আমতলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এ বিষয়ে কাশেমের বোন শাহনাজ পারভীন বলেন, নাদিরার সঙ্গে আমার ভাইয়ের দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। এই সম্পর্ক দুই পরিবারের কেউ মেনে নেয়নি। পরে দুইজনেরই একত্রে ঘটনা দিন বিষ পান করেছে। তাদের দুইজনকেই হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তবে আমার ভাইয়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

নাদিরার ভগ্নিপতি সাবেক ইউপি সদস্য শাহজালাল জানান, দু’জনেরই চিকিৎসা চলছে। সুস্থ হলে পারিবারিকভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার গৌরাঙ্গ হাজরা বলেন, প্রেমিক কাশেমকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী পাঠানো হয়েছে এবং প্রেমিকা নাদিরার এখানেই চিকিৎসা চলছে।

তালতলী থানার ওসি শেখ শাহিনুর রহমান বলেন, এ বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
টিনিউজ/এফএইস

পোষ্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© কপিরাইট ২০১০ - ২০২৪ সীমান্ত বাংলা >> এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ

Design & Developed by Ecare Solutions