মঙ্গল. মার্চ ৩১, ২০২০

ফেনী পলিটেকনিকে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষ: আহত ৬, আটক ৪

ফেনী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে বুধবার ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে বহিরাগতসহ অন্তত ৬ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ফালাহিয়া শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি অপুর অবস্থা আশংকাজনক। এ ঘটনায় পুলিশ চারজনকে আটক করেছে। সে ফুলগাজী উপজেলার বশিকপুর গ্রামের মৃত নুর আহমদের ছেলে বলে সংগঠন সূত্র জানিয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, আজ দুপুরে তৃতীয় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী সাকিব ও আরাফাতের মধ্যে শ্রেণিকক্ষে বসা নিয়ে তুমুল বাকবিতণ্ডা হয়। এর জের ধরে ক্যাম্পাসে সাকিব তার এক সহযোগী নাইমকে নিয়ে কয়েকজনকে জড়ো করে। একপর্যায়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপ মুখোমুখি হলে উভয়পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ বেধে যায়।

এ সময় তোফায়েল আহম্মদ অপু, সাইদুর রহমান সাকিব, মানিক, তাওহিদুল, হৃদয় ও আরিফসহ কয়েকজন আহত হয়। আহতদের ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। খবর পেয়ে ফেনী মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ সময় পলিটেকনিকের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী ছাগলনাইয়ার মন্দিয়া গ্রামের নাইমুল হাসান, তৃতীয় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী সেনবাগের মোটবী গ্রামের নাজমুল ইসলাম, পলিটেকনিকের শিক্ষার্থী শান্তিধারা আবাসিক এলাকার শাহরিয়ার হোসেন ও বিরিঞ্চি এলাকার খন্দকার বাড়ির ফরিদি হাসানকে আটক করা হয়।

ফেনী জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডা. আবু তাহের পাটওয়ারী জানান, আহতদের মধ্যে তিনজন চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদের মধ্যে অপুর অবস্থা গুরুতর।

ফেনী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ মোস্তাফিজুর রহমান খাঁন জানান, তার ক্যাম্পাসে কোন ধরনের ঘটনা ঘটেনি। পলিটেকনিকসংলগ্ন সড়কের বিপরীত পাশে কয়েকজন ছেলে ঝামেলা করেছে বলে তিনি শুনেছেন।

ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সাজেদুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে ছুটে যান। সেখান থেকে চারজনকে আটক করা হয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.