শনিবার, ১৩ Jul ২০২৪, ০৬:১৩ পূর্বাহ্ন

‘পাবনার অবৈধ বাজার এখন ফুলের বাগান’

‘পাবনার অবৈধ বাজার এখন ফুলের বাগান’

বার্তা সংস্থা পিপ: পাবনা জেলার সাঁিথয়া উপজেলার ব্যস্ততম কাশীনাথপুর চৌরাস্তা। এই স্থান দিয়ে প্রতিদিন পাবনা শহর, রাজশাহী, ঢাকা, বগুড়াসহ বিভিন্ন পথে প্রায় অর্ধলক্ষ মানুষের চলাচল। কিন্তুু রাস্তার সব দিকে অবৈধ বাজার, দোকানপাট, হোটেল, দোকানীদের নানা পসরা, মানুষের ভীড়ে ঠাসা। সড়ক বিভাগের জমি অবৈধ দখল করে গড়ে তোলা হয়েছে এ সব অবৈধ দোকানপাট, খাবার হোটেল, বাজার, পাকা স্থাপনা। এ কারণে যাত্রী সাধারণ, স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষের চলাচলে যানজট ছিল নিত্যসঙ্গি। কিন্তু এখন সেখানে বদলে গেছে দৃশ্যপট। খাবার হোটেল, অবৈধ দোকাপাট এবং অবৈধ বাজারের দোকানপাটের জায়গায় স্থান পেয়েছে ফুলগাছসহ নানা ধরণের ফলজ ও বনজ গাছের বাগান। অবৈধ উচ্ছেদ অভিযান শেষে আবার যেন বাজার বসাতে না পারে সে জন্য ঐ সব জায়গা গ্রীল দিয়ে ঘেরাও করে সেখানে রোপন করা হয়েছে নানা ধরণের ফুলের চারা। এতে ঐ এলাকার সাধারণ মানুষজন খুব খুশি। এখন ঐ স্থানে যানজট নেই বললেই চলে।
সড়ক বিভাগ সুত্র জানায়, পাবনা জেলার কাশীনাথপুর, বেড়া বাজার, শহরের উভয়পার্শ্বে এবং দাশুড়িয়া মোড়সহ বিভিন্ন স্থানে অবৈধ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ৭৬১ টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে সরকারের ২৭ দশমিক ৮৫ একর মুল্যেবান সম্পত্তি উদ্ধার করা হয়েছে। যার আনুমানিক বাজার মূল্যে ২৩৬ কোটি টাকা। শোভাবর্ধনের জন্য উচ্ছেদকৃত জায়গায় ফুলের গাছ লাগানো হয়েছে।
কাশীনাথপুরের স্কাইলার্ক স্কুলের ছাত্রী আখি খাতুন বলেন, আগে ট্রাফিক জ্যামের কারণে স্কুলে যেতে দেরী হত। এখন স্কুলের সামনে কোন জ্যাম নেই।

ঐ এলাকার বাস চালক সুবহান বলেন, আগে এ সব দোকানপাটের জন্য জ্যামে ঘন্টার পর ঘন্টা রাস্তায় বাস দাড় করিয়ে রাখতে হতো। এখন একদম পরিস্কার।

পাবনার চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি সভাপতি সাইফুল ইসলাম চৌধুরী স্বপন বলেন, সড়ক বিভাগের এই উচ্ছেদ খুব প্রয়োজন ছিল। উদ্ধারকৃত জায়গায় ফুল বাগান করার কারণে ঐ এলাকার সৌন্দর্য অনেক বেড়ে গেছে।

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) পাবনা জেলা শাখার সভাপতি আব্দুল হামিদ খান জানান, এ ধরণের উদ্যোগ শহরের পরিবেশ বান্ধব। এই উদ্যোগকে সবার সহায়তা করা দরকার।

সড়ক বিভাগ পাবনার নির্বাহী প্রকৌশলী সমীরণ রায় জানান, সাঁিথয়া উপজেলার ব্যস্ততম এলাকা কাশীনাথপুর চৌরাস্তা। এই স্থান দিয়ে প্রতিদিন প্রায় অর্ধলক্ষ মানুষের চলাচল। কিন্তু এক শ্রেণীর ব্যক্তি সড়ক বিভাগের জায়গা অবৈধ দখল করে সেখানে খাবার হোটেল, বাজারসহ নানা দোকানপাট তৈরি করেছিল। ফলে এই স্থানে প্রচন্ড যানজট হতো। যানজটের কারণে মানুষজন অতীষ্ঠ ছিল। এতে সাধারণ মানুষসহ স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের চরম অসুবিধা হত। এই স্থানে অবৈধ উচ্ছেদ অভিযান করে সরকারের বিপুল টাকার সম্পত্তি উদ্ধার এবং ট্রাফিক জ্যাম মুক্ত করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, পাবনা-নগরবাড়ী মহাসড়কের কয়েকটি স্থানে রাস্তার পাশে হাট বসতো। এ ছাড়া ঐ হাটবাজারের পাশের রাস্তার দু‘ধারে অনৈক অবৈধ স্থাপনা গড়ে তোলা হয়েছিল। এগুলোর মধ্যে আতাইকুলা, শহরের অনন্ত বাজার, মাসুম বাজার, গাছপাড়া, টেবুনিয়া, রাধানগর, ঈশ্বরদী উপজেলার দাশুড়িয়া এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়।

সড়ক বিভাগ পাবনার নির্বাহী প্রকৌশলী সমীরণ রায় আরও বলেন, উচ্ছেদকৃত ভুমিতে আবারও যদি কেই স্থাপনা বা অবৈধ দখল গড়তে যায় তা হলে এবার তাদের শুধু উচ্ছদ নয়, তাদের বিরুদ্ধে ফৌজদারী মামলা করা হবে।

পোষ্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© কপিরাইট ২০১০ - ২০২৪ সীমান্ত বাংলা >> এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ

Design & Developed by Ecare Solutions