মঙ্গলবার, ২৫ Jun ২০২৪, ০২:০৭ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ
নরসিংদীতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত উল্লাপাড়ায় মাইক্রোবাস-অটোভ্যান মুখোমুখি সংঘর্ষে অটোভ্যান চালক নি’হ’ত। নরসিংদীর রায়পুরায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘ’র্ষ, আহত ৪ ঘুমধুমে অজ্ঞাত ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার নরসিংদীর রায়পুরায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ৪ সেন্টমা‌র্টিন দ্বীপ নি‌য়ে বাকযুদ্ধ – মেজর না‌সিরু‌দ্দিন(অব) পিএইচ‌ডি রা‌সেল ভাইপার সা‌পের কাম‌ড়ে আক্রান্ত কৃষক এখ‌নো সুস্থ  রাসেলস ভাইপার নিয়ে আতঙ্ক না ছড়িয়ে সচেতন হওয়ার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের এক ছাগল কিনেই বেরিয়ে এলো মতিউর-লাকী দম্পতির থলের বেড়াল ভারতকে হারিয়ে সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে মরিয়া টাইগাররা
পরিবেশ রক্ষায় কাজ করতে গিয়ে আত্মাহুতি দিলেন জাভিয়ার ফ্রান্সিসকো

পরিবেশ রক্ষায় কাজ করতে গিয়ে আত্মাহুতি দিলেন জাভিয়ার ফ্রান্সিসকো

কলম্বিয়ার কর্মাকারেনা পৌরসভা। সেই পৌরসভার অফিস থেকেই বেরিয়ে হেঁটে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। তবে হঠাৎ নীরবতা ভেঙে গেল রাস্তার। একবার নয়। পর পর বেশ কয়েকবার গুলি চলল রিভালভার থেকে। আর তারপর মুহূর্তের মধ্যেই বাইকে করে হাওয়ায় মিলিয়ে গেল দুই দুষ্কৃতী। ততক্ষণ মাটিতে লুটিয়ে পড়েছেন জাভিয়ার ফ্রান্সিসকো পারা কিউবিলোস। কলম্বিয়ার অন্যতম এক পরিবেশকর্মী। দোষ বলতে সেটাই। বন-নিধনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো।

গত ৩ তারিখ এই হত্যাকাণ্ডের সাক্ষী থাকল কলম্বিয়া। আহত অবস্থায় তাঁকে পুলিশকর্মীরা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করলেও, রাস্তাতেই থেমে যায় লড়াই। হাসপাতালে যাওয়ার আগেই শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন ফ্রান্সিসকো। কলম্বিয়া সরকারের পরিবেশ বিভাগের মেটা ডিপার্টমেন্টেই দীর্ঘদিন ধরে কর্মরত ছিলেন ফ্রান্সিসকো। কোরমাকারেনা অঞ্চলে সামগ্রিক বিকাশের সমন্বয়ক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছিলেন বর্তমানে। মনুষ্যসৃষ্টি দাবানল, অনৈতিক নির্মাণ এবং বন-নিধনের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন ফ্রান্সিসকো। সেইসঙ্গে ড্রাগ-পাচার চক্রেরও বিরোধিতা করেছিলেন তিনি। অ্যানডিয়ান, অরিনোসিন এবং অ্যামাজোনিয়ানের জীববৈচিত্রপূর্ণ পরিবেশ রক্ষার জন্য খেসারত দিতে হল তাঁকে শেষ পর্যন্ত।

তবে চলতি বছরে ফ্রান্সিসকোর এই ঘটনাই প্রথম নয়। গত ফেব্রুয়ারি মাসে এল কোকুই জাতীয় উদ্যানের এক রক্ষাকর্মীও প্রাণ হারিয়েছিলেন এমনই সন্ত্রাসবাদী আক্রমণে। ২০১৯ থেকে সব মিলিয়ে মারা গিয়েছেন প্রায় ৬৪ জন পরিবেশকর্মী। তবে নিশ্চিত নয় সংখ্যাটা। কারণ নিখোঁজের সংখ্যার হিসাব নেই কোনো। পাশাপাশি ফ্রান্সিসকোর বিভাগেরই আরও ২০ জন কর্মীদের হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছে দুষ্কৃতীরা।

ফ্রান্সিসকোর মৃত্যুর পরেই নড়েচড়ে বসেছে কলম্বিয়া প্রশাসন। হত্যাকারীদের হদিশ পেতে ৬ হাজার মার্কিন ডলারের পুরস্কারমূল্য ঘোষণা করেছেন কলম্বিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। তবে তারপরেও কাটছে না আতঙ্ক। অদৃশ্য মৃত্যুশমনের সঙ্গেই লড়াই করে যাচ্ছেন পরিবেশকর্মীরা। একদিকে যেমন অনিশ্চিত হয়ে রয়েছে কলম্বিয়ার অরণ্যাঞ্চলের ভাগ্য, তেমনই যেন নিশ্চয়তা নেই পরিবেশকর্মীদের জীবনেরও…

( সুত্রঃ জাতীয় দৈনিক / ১৪ ডিসেম্বর ২০২০)

পোষ্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© কপিরাইট ২০১০ - ২০২৪ সীমান্ত বাংলা >> এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ

Design & Developed by Ecare Solutions