শনি. জুন ১৫, ২০১৯

পরকিয়া প্রেমে চার সন্তানের জননীঃ স্বামীর উপর হামলা

ফারুখ আহমেদ, উখিয়া ♦ পরকীয়া প্রেমে আসক্ত হয়ে ৪ সন্তানের জননী সকিনা খাতুন এক লম্পটের সাথে বাড়ীর বাহিরে গিয়ে অবস্থানের ঘটনা নিয়ে চলছে এলাকায় নানা কানা ঘোষা। স্ত্রীর এহেন কর্মকান্ড বাধাঁ দিতে গিয়ে হামলার শিকার হলেন স্বামী নুরুল আলম।
স্ত্রীর অবৈধ কার্যকলাপের বিচার চেয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান মেম্বারদের নিকট শালিস দায়ের করেছেন তিনি। ঘটনাটি ঘটেছে খুনিয়া পালং ইউনিয়নের দক্ষিণ ধেছুয়া পালং হীরার দ্বীপ বড়ুয়া পাড়া গ্রামে।
গ্রামবাসীরা জানায়, পূর্ব ধেছুয়া পালং রহমানিয়া মাদ্রাসা সংলগ্ন এলাকার মোহাম্মদ হোসনের কন্যা সকিনা খাতুনের সাথে বিগত ১৫ বছর পূর্বে নুর মোহাম্মদের ছেলে নুরুল আলমের মধ্যে বিবাহ হয়। তাদের সংসারে ৩ ছেলে ১ মেয়ে রয়েছে।
স্বামী নুরুল আলম অভিযোগ করে বলেন, আমার স্ত্রীর সাথে একই এলাকার মৃদুল শীল নামক এক ব্যক্তির সাথে পরকীয়া সর্ম্পক হয়।
মোবাইলে কথা বলা থেকে তাদের পরিচয়। তাদেরকে পরকীয়ার আসক্ত থেকে ফেরাতে অনেক বাধা প্রদান সহ চেষ্টা করেছি। তিনি আরও বলেন, জীবিকা নির্বাহ করার জন্য সারাদিন রিক্সা চালাতে কক্সবাজারে চলে যাই। এ সুযোগে স্ত্রী পরকীয়া আসক্ত হয়ে লম্পটের সাথে বিভিন্ন জায়গায় রাত  যাপন করে। জিজ্ঞেসা করা হলে উল্টো আমাকে এবং আমার বোনকে মারধর সহ অশালীন গালি গালাজ করে। এমনকি সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে আমাকে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়।
খোজখবর নিয়ে জানা যায়, পরকীয়া প্রেমের ঘটনা ফাসঁ হলে স্বামী স্ত্রীর মাধ্যে পারিবারীক দ্বন্দ সৃষ্টি হয়। এমনকি গত ২ মাস যাবৎ স্ত্রী বাপের বাড়ীতে রয়েছে । অতিসম্প্রতি খুনিয়া পালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেম্বারের নিকট পরকীয়া আসক্ত স্ত্রীর বিরুদ্ধে শালীস দায়ের করেছে স্বামী নুরুল আলম।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.