শুক্র. ফেব্রু. ২৮, ২০২০

উখিয়ায় অর্থকরী ফসল পান চাষ কৃষক‌ের আগ্রহ বাড়ছ‌ে 

রফিক উদ্দিন বাবুল,উখিয়া > রোহিঙ্গাদের কারণ‌ে উখিয়া-ট‌েকনাফ‌ে পান চাষ‌ের কিছুটা ক্ষয়ক্ষতি হল‌েও নানা প্রতিকূলতায় কৃষক‌েরা তা কাটিয়‌ে উঠ‌তে সক্ষম হ‌য়ে‌ছে। তব‌ে পান‌ের বরজ‌ের জন্য জায়গা, উপকরণ সংকট‌ের ফলে আগ‌ের তুলনায় পান চাষ‌ে জৌলুষ ন‌েই। তথাপিও র‌োহিঙ্গা স্থানীয়দ‌ের অতি‌রিক্ত চাহিদার কারণে বাজার‌ে পান‌ের দাম ব‌েড়‌েছে অ‌নেকগুণ। পান চাষ‌ের উপর কৃষকদ‌ের স্বল্প ম‌েয়াদ‌ে ঋণ দ‌েওয়া হল‌ে প্রতি অর্থবছরে উখিয়া ট‌েকনাফ‌ে উৎপাদিত প্রায় ২০ ক‌োটি টাকার পান বিদ‌েশ‌ে রপ্তানী করা সম্ভব বলে উখিয়ার ব‌েশ কয়‌েকজন প‌েশাদার পানচাষী জানি‌য়ে‌ছেন।

উখিয়ার স‌োনারপাড়া গ্রাম‌ের পানচাষী নজরুল ইসলাম জানায়, স‌ে প্রতি বছর একখন্ড জমিত‌ে পান চাষ কর‌নে। সে জানান, পান চাষ ফুল চাষ‌ের মত‌ো। যত করবেন তত বেশী আয় হবে।  চলতি মৌসুম‌ে স‌ে ওই পান‌ের বরজ থ‌েক‌ে এক লাখ ২০ হাজার টাকার পান বিক্রি কর‌েছ‌ে। পাশাপাশি পান‌ের চারা বিক্রি কর‌েছ‌ে প্রায় ৪০ হাজার টাকার। এছাড়াও তার পান‌ের বরজ‌ে রয়‌ে গ‌েছ‌ে আ‌রো চারাসহ পান।  স্থানীয় পানচাষী নজু, মির ও অলি আহমদ জানায়, আগে পান চাষ‌ে এত কদর ছিল না। য‌েহ‌েতু পান চাষ‌ে উপকরণ সংকট সহ বিভিন প্রাকৃতিক দূর্যোগ‌ের ভয়‌ে অন‌েক‌েই পান চাষ কর‌েনি। বর্তমান পান চাষী কৃষক‌েরা ধারাবাহিক লাভবান হওয়ার সুবাদ‌ে পান চাষ‌ে মানুষ‌ের আগ্রহ বাড়ছ‌ে।
উপজ‌েলা কৃষি অফিস সূত্র জানা যায়, চলতি ম‌ৌসুম উখিয়ায় সাড়‌ে ৪শ হ‌েক্টর জমিত‌ে পান চাষ হয়‌েছ‌ে। তৎমধ্য‌ে উপকূলীয় এলাকা জালিয়াপালং ইউনিয়ন‌ের প্রায় ৩শ’ একর পান‌ের বরজ দৃশ্যমান পান উৎপাদন হয়‌েছ‌ে। ট‌েকনাফ‌ের কৃষি কর্মকর্তা ও উখিয়া উপজ‌েলা ভারপ্রাপ্ত কৃষি কর্মকর্তা মাসুদ ছিদ্দিকীর সাথ‌ে আলাপ‌ে তিনি জানান, উখিয়া টেকনাফ‌ে য‌েসব পান উৎপাদন হয়‌ে থাক‌ে তা রপ্তানীযোগ্য। তিনি বল‌েন, প্রাকৃতিক দুয‌োর্গ বা অন্য ক‌োন র‌োগ বালাইয় আক্রান্ত না হল‌ে প্রতি অর্থবছরে উখিয়া ট‌েকনাফ থ‌েক‌ে ৫০ ক‌োটি টাকার পান উৎপাদন সম্ভব। তিনি বল‌েন, এলাকার অধিকাংশ পানচাষী কৃষক সরকারি বনভূমির পাহাড়ি পরিত্যক্ত এলাকায় পুঁজি বিনিয়‌োগ কর‌ে পান চাষ কর‌ে আসছ‌ে। এসব চাষীদ‌ের সহজ শর্ত‌ে ঋণ দ‌েওয়া হল‌ে পান চাষ কর‌ে শত শত হতদরিদ্র পরিবার স্বছলতা ফিরিয়‌ে আনার সম্ভাবনা র‌য়ে‌ছে।
কোর্টবাজার‌ের পান ব্যবসায়ী নজু মিয়া ও ছিদ্দিক জানান, উখিয়ার সোনারপাড়া, ক‌োর্টবাজার, মরিচ্যা, উখিয়া সদর, বালুখালী ও পালংখালী থ‌েক‌ে প্রতি সপ্তাহ‌ে লাখ লাখ টাকার পান‌ের চালান শহর‌ের বিভিন্ন আড়তে যাচ্ছে। আড়তদার ব্যবসায়ীরা এসব পান প্রক্রিয়াজাত কর‌ে ঢাকাসহ দ‌েশ‌ের বিভন্ন অঞ্চলে চালান করছ‌ে।
উখিয়ার উপর দিয়ে বয়‌ে যাওয়া ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এর আঘাত‌ে পান চাষ‌ের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়‌েছ‌ে। এসব পানচাষীদ‌ের অর্থ প্রন‌োদনা দ‌েওয়া হব‌ে কিনা এমন প্রশ্নের জবাব‌ে উপজলা নির্বাহী কর্মকর্তা ম‌োঃ নিকারুজ্জামান চ‌ৌধুরী বল‌েন, কৃষি কর্মকর্তার সাথ‌ে আলাপ কর‌ে ক্ষতিগ্রস্থ পানচাষীদের আর্থিক সহায়তা প্রদান‌ের ব্যবস্থা নেওয়া হব‌ে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.