শনিবার, ২২ Jun ২০২৪, ০৪:১৪ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ
সেন্টমা‌র্টিন দ্বীপ নি‌য়ে বাকযুদ্ধ – মেজর না‌সিরু‌দ্দিন(অব) পিএইচ‌ডি রা‌সেল ভাইপার সা‌পের কাম‌ড়ে আক্রান্ত কৃষক এখ‌নো সুস্থ  রাসেলস ভাইপার নিয়ে আতঙ্ক না ছড়িয়ে সচেতন হওয়ার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের এক ছাগল কিনেই বেরিয়ে এলো মতিউর-লাকী দম্পতির থলের বেড়াল ভারতকে হারিয়ে সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে মরিয়া টাইগাররা প্রধানমন্ত্রী দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে নয়াদিল্লী পৌঁছেছেন মোটরবাইক ও ইজিবাইকের কার‌ণে সা‌দে‌শে সড়ক দুর্ঘটনা বাড়‌ছে- সেতুমন্ত্রী ওবাইদুল কা‌দের  ওমা‌নে খুল‌ছে বাংলা‌দে‌শের তৃতীয় বৃহত্তম শ্রমবাজার এলাকাজুড়ে আতঙ্ক, মানিকগঞ্জে লোকালয়ে ঢুকেছে রাসেল ভাইপার উত্তর পুর্বাঞ্চলীয় রা‌জ্যের স‌ঙ্গে অন‌্যান‌্য রাজ‌্যগু‌লোকে সংযুক্ত কর‌তে বাংলা‌দে‌শের উপর‌দি‌য়ে বিকল্প রেলপথ তৈ‌রি কর‌তে যা‌চ্ছে ভারত সরকার 
উখিয়ার আলোচিত মাহবুব হত্যা মামলার অন্যতম আসামী কাজল গ্রেফতার

উখিয়ার আলোচিত মাহবুব হত্যা মামলার অন্যতম আসামী কাজল গ্রেফতার

সীমান্তবাংলাঃ উখিয়ার বহুল আলোচিত মাহবুব হত্যা মামলার অন্যতম আসামী ও এলাকার কুখ্যাত সন্ত্রাসী ইমাম হোছন কাজল (৩০) অবশেষে পুলিশের জালে আটকা পড়েছেন।

২৩ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় পশ্চিম দরগাহবিল গ্রামের মৃত হাজী পেটান আলীর বাড়ি ঘেরাও করে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মর্জিনা আক্তারের নেতৃত্বে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নিজাম একদল পুলিশ তাকে আটক করে। ধৃত ব্যক্তি উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের পশ্চিম দরগাহবিল গ্রামের চিহ্নিত অপরাধী নজির আহমদের পুত্র।
২০১৯ সালের ৩০ নভেম্বর রাত ১১টার সময় দরগাহবিল গ্রামের প্রবাসী গুরা মিয়ার ছেলে নিরহ টমটম চালক মাহবুব আলমকে
(৩০) কে অপহরণ পুর্বক বেধড়ক মারধর করে গলা টিপে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে।

এ হত্যাকান্ডের ঘঠনায় নিহতের মাতা রাজিয়া বেগম বাদী হয়ে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে উখিয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করে। উখিয়া থানার মামলা নম্বর ০১ তারিখ- ০১/১২/২০১৯, ধারা :৩০২/২০৪। জি,আর ৫৮৮/২০১৯। ইতোপূর্বে মামলার আরেক আসামী সাইফুল ইসলামকে গ্রেফতার করে কোর্টে হাজির করলে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

এলাকাবাসীরা জানান, মাহবুব হত্যার আসামীরা ঘটনার পর পর কয়েক মাস পলাতক থেকে সম্প্রতি এলাকায় ফিরে এসে আবার নানান অপরাধ সংঘটিত করে চলেছে। প্রতিদিন, চুরি, ডাকাতি, ইয়াবা ছিনতাইসহ সন্ত্রাস করে বেড়াচ্ছে। সন্ত্রাসী বাহিনীর মুল গডফাদার বেলাল বাহিনীর প্রধান কানা বেলাল।

এ বাহিনীর রয়েছে ১৯ টি কিরিচ, ২টি অবৈধ অস্ত্র, চুরি ও ধারালো হরেক রকম অস্ত্র ভান্ডার। তাদের বিরুদ্ধে হত্যা, অপহরণ, খুন, ধর্ষণ, চুরি,ডাকাতি, জবর দখল, সন্ত্রাসী হামলাসহ ১৮ টি মামলা রয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মর্জিনা আক্তার সাংবাদিকদের বলেন,মাহবুব হত্যার অন্যতম আসামী কানা বেলালসহ সব আসামীকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। এছাড়া দরগাহবিল এলাকায় শান্তি শৃংখলা বজায় রাখতে পুলিশ কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

সীমান্তবাংলা / শা ম/ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

পোষ্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© কপিরাইট ২০১০ - ২০২৪ সীমান্ত বাংলা >> এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ

Design & Developed by Ecare Solutions