শনিবার, ১৩ Jul ২০২৪, ০৬:৩৬ পূর্বাহ্ন

অবশেষে থামল পাগলা হাতির তাণ্ডব

অবশেষে থামল পাগলা হাতির তাণ্ডব

তানোর উপজেলা প্রতিনিধি: প্রথমে চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল ও পরে রাজশাহীর তানোরে দুজনের প্রাণ কেড়ে নেওয়া সার্কাস দলের পাগলা হাতিটির তাণ্ডব থামানো গেছে। আজ বৃহস্পতিবার অভিযান চালিয়ে দুপুর ২টার দিকে চেতনানাশক দিয়ে হাতিটিকে অচেতন করে শিকলে বাঁধা হয়েছে।

এই পাগলা হাতির তাণ্ডবে নিহত হয়েছে রাজশাহীর তানোর উপজেলার বাধাইড় ইউনিয়ন এর জুমার পাড়া গ্রামের রামপদ (৪০) ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার নাচোল লক্ষ্মীপুর গ্রামের বুলবুল হোসেনের অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া ছেলে মোবাশের আলী (১৩)।

গতকাল বুধবার সকালে হঠাৎ করেই হাতিটি তানোরের লক্ষ্মীপুর গ্রামের মোবাশের আলী নামের এক কিশোরকে শুঁড় দিয়ে পেঁচিয়ে মাটিতে আছাড় দেয়। স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনার পর মাহুত হাতি রেখে পালিয়ে যান। মাহুত না থাকায় হাতির পাগলামি আরো বেড়ে যায়।এলাকার লোকজন ধাওয়া করলে হাতিটি তানোর এলাকায় ঢুকে তাণ্ডব শুরু করে। বিকেলে হাতিটি আমনুরা থেকে তানোরের দিকে আসার সময় ধামধুম এলাকায় কৃষক রামপদকে শুঁড় দিয়ে ধরে মাটিতে আছড়িয়ে মেরে ফেলে। রাতে হাতিটি ধামধুম এলাকার ফসলি জমির ভেতর ঢুকে যায়। সর্বশেষে বৃহস্পতিবার সকালে বৈদ্যপুর এলাকার একটি কবরস্থানে আশ্রয় নেয়।হাতি ছুটে যাওয়ার খবর পেয়ে বন বিভাগের কর্মকর্তারা সেটি ধরার জন্য চেষ্টা শুরু করেন।

বন বিভাগের ঢাকা ও রাজশাহীর টিম, তানোর ফায়ার সার্ভিস, তানোর থানা পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় অভিযান চালানো হয় বন বিভাগের টিম প্রথমে দুপুর ১২টার দিকে চেতনানাশক ওষুধ পুশ করে অজ্ঞান করে বাঁধার চেষ্টা করলে তারা সফল হতে পারেনি। হাতির জ্ঞান ফিরে আবারও তাণ্ডব শুরু করে। দ্বিতীয়বার দুপুর ২টার দিকে চেতনানাশক ওষুধ পুশ করে অজ্ঞান করে মোটা দড়ি ও লোহার শিকল দিয়ে বেঁধে ফেলে।

পোষ্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© কপিরাইট ২০১০ - ২০২৪ সীমান্ত বাংলা >> এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ

Design & Developed by Ecare Solutions